Dhaka 11:11 pm, Tuesday, 16 April 2024

মেজর জিয়াসহ ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড : অভিজিৎ হত্যা মামলা

  • Reporter Name
  • Update Time : 08:28:02 am, Tuesday, 16 February 2021
  • 174 Time View

এনবি নিউজ : আজ মঙ্গলবার সকালে ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান ব্লগার ও লেখক অভিজিৎ হত্যা মামলায়  রায় ঘোষণা করেছেন।

ব্লগার ও লেখক অভিজিৎ হত্যা মামলায় মোট ছয় জনের সাজা ঘোষনা করেন আদলত। পাঁচজনের মৃত্যুদন্ড ও অপর আসামির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। দিয়েছেন আদালদত। এছাড়া

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন-মেজর (চাকরিচ্যুত) সৈয়দ মোহাম্মদ জিয়াউল হক ওরফে জিয়া, মোজাম্মেল হুসাইন ওরফে সায়মন (সাংগঠনিক নাম শাহরিয়ার), আবু সিদ্দিক সোহেল ওরফে সাকিব ওরফে সাজিদ ওরফে শাহাব, আকরাম হোসেন ওরফে আবির, আরাফাত রহমান।

যাবজ্জীবনপ্রাপ্ত আসামি হলেন- শফিউর রহমান ফারাবি। জিয়াউল হক ও আকরাম হোসেন শুরু থেকেই পলাতক।

অভিজিৎ রায়কে ২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি রাত সোয়া ৯টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) টিএসসি এলাকায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের পাশে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে জখম করে।

আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেয়া হলে ওইদিন রাত সাড়ে ১০টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

২৭ ফেব্রুয়ারি অভিজিতের বাবা বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অজয় রায় শাহবাগ থানায় হত্যা মামলা করেন।

২০১৯ সালের ১৩ মার্চ ঢাকা মহানগর হাকিম সরাফুজ্জামান আনসারীর আদালতে ছয়জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের পরিদর্শক মনিরুল ইসলাম।

মামলায় ৩৪ জন সাক্ষীর মধ্যে ২৮ জন সাক্ষ্য দেন। ৪ ফেব্রুয়ারি ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য ১৬ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেন।

এ টি

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

Popular Post

মেজর জিয়াসহ ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড : অভিজিৎ হত্যা মামলা

Update Time : 08:28:02 am, Tuesday, 16 February 2021

এনবি নিউজ : আজ মঙ্গলবার সকালে ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান ব্লগার ও লেখক অভিজিৎ হত্যা মামলায়  রায় ঘোষণা করেছেন।

ব্লগার ও লেখক অভিজিৎ হত্যা মামলায় মোট ছয় জনের সাজা ঘোষনা করেন আদলত। পাঁচজনের মৃত্যুদন্ড ও অপর আসামির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। দিয়েছেন আদালদত। এছাড়া

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন-মেজর (চাকরিচ্যুত) সৈয়দ মোহাম্মদ জিয়াউল হক ওরফে জিয়া, মোজাম্মেল হুসাইন ওরফে সায়মন (সাংগঠনিক নাম শাহরিয়ার), আবু সিদ্দিক সোহেল ওরফে সাকিব ওরফে সাজিদ ওরফে শাহাব, আকরাম হোসেন ওরফে আবির, আরাফাত রহমান।

যাবজ্জীবনপ্রাপ্ত আসামি হলেন- শফিউর রহমান ফারাবি। জিয়াউল হক ও আকরাম হোসেন শুরু থেকেই পলাতক।

অভিজিৎ রায়কে ২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি রাত সোয়া ৯টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) টিএসসি এলাকায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের পাশে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে জখম করে।

আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেয়া হলে ওইদিন রাত সাড়ে ১০টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

২৭ ফেব্রুয়ারি অভিজিতের বাবা বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অজয় রায় শাহবাগ থানায় হত্যা মামলা করেন।

২০১৯ সালের ১৩ মার্চ ঢাকা মহানগর হাকিম সরাফুজ্জামান আনসারীর আদালতে ছয়জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের পরিদর্শক মনিরুল ইসলাম।

মামলায় ৩৪ জন সাক্ষীর মধ্যে ২৮ জন সাক্ষ্য দেন। ৪ ফেব্রুয়ারি ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য ১৬ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেন।

এ টি