Dhaka 5:44 pm, Wednesday, 24 April 2024

বাংলা মায়ের শ্রেষ্ঠ সন্তানদের শ্রদ্ধা জানাতে শহিদ মিনারে মানুষের ঢল

  • Reporter Name
  • Update Time : 07:10:25 am, Sunday, 21 February 2021
  • 270 Time View

আসাদুজ্জামান তপন : মাতৃভাষার জন্য জীবন উৎসর্গ করে পৃথিবীতে অনন্য নজীরসৃস্টিকারী সৃষ্টি করেছে বাঙালি। সেই ভাষা বীরদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ফুল হাতে শহীদ মিনারে ছুটে চলছে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার হাজারও মানুষ। জাতির ফুলেল শ্রদ্ধার্ঘ্যতে ফুলে ফুলে ভরে গেছে শহীদ মিনার।

তবে এবার ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদনের আয়োজনটি করোনা মহামারির কারণে সীমিত পরিসরে পালিত হচ্ছে। রোববার রাত ১২টা মিনিটে রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে তাদের প্রতিনিধিদল, রাষ্ট্রীয় বিভিন্ন সংস্থার ব্যক্তিবর্গ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ শেষে সাধারণ মানুষের জন্য কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণ খুলে দেওয়া হয়।  এরপর সর্বস্তরের জনতা শহীদ বেদীতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে ফিরে যাচ্ছেন আপন গন্তব্যে। ভোরে ঢাকার শাহবাগসহ বেশ কয়েকটি স্থানে প্রভাতফেরী হয়েছে। এতে শিশুকিশোরসহ নানা বয়সীরা অংশ নিয়েছেন।

করোনার ভয়াভয়তা সত্বেও মায়ের ভাষার মর্যাদা রক্ষার জন্য আত্মত্যাগকারীদের প্রতি ভালোবাসার কমতি ছিল না সাধারণ জনগণের৷ লালসাদাহলুদবেগুনি কত বাহারি রঙের থোকা থোকা ফুলের স্তবকে ছেয়ে গেছে শহীদ মিনার৷

কণ্ঠে বিষাদমাখা চিরচেনা গানআমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি…’ আর হাতে রঙিন ফুলের স্তবক নিয়ে ভাষার জন্য প্রাণ দেওয়া সূর্যসন্তানদের স্মরণ করছে কৃতজ্ঞ এ জাতি৷

এ টি

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

বাংলা মায়ের শ্রেষ্ঠ সন্তানদের শ্রদ্ধা জানাতে শহিদ মিনারে মানুষের ঢল

Update Time : 07:10:25 am, Sunday, 21 February 2021

আসাদুজ্জামান তপন : মাতৃভাষার জন্য জীবন উৎসর্গ করে পৃথিবীতে অনন্য নজীরসৃস্টিকারী সৃষ্টি করেছে বাঙালি। সেই ভাষা বীরদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ফুল হাতে শহীদ মিনারে ছুটে চলছে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার হাজারও মানুষ। জাতির ফুলেল শ্রদ্ধার্ঘ্যতে ফুলে ফুলে ভরে গেছে শহীদ মিনার।

তবে এবার ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদনের আয়োজনটি করোনা মহামারির কারণে সীমিত পরিসরে পালিত হচ্ছে। রোববার রাত ১২টা মিনিটে রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে তাদের প্রতিনিধিদল, রাষ্ট্রীয় বিভিন্ন সংস্থার ব্যক্তিবর্গ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ শেষে সাধারণ মানুষের জন্য কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণ খুলে দেওয়া হয়।  এরপর সর্বস্তরের জনতা শহীদ বেদীতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে ফিরে যাচ্ছেন আপন গন্তব্যে। ভোরে ঢাকার শাহবাগসহ বেশ কয়েকটি স্থানে প্রভাতফেরী হয়েছে। এতে শিশুকিশোরসহ নানা বয়সীরা অংশ নিয়েছেন।

করোনার ভয়াভয়তা সত্বেও মায়ের ভাষার মর্যাদা রক্ষার জন্য আত্মত্যাগকারীদের প্রতি ভালোবাসার কমতি ছিল না সাধারণ জনগণের৷ লালসাদাহলুদবেগুনি কত বাহারি রঙের থোকা থোকা ফুলের স্তবকে ছেয়ে গেছে শহীদ মিনার৷

কণ্ঠে বিষাদমাখা চিরচেনা গানআমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি…’ আর হাতে রঙিন ফুলের স্তবক নিয়ে ভাষার জন্য প্রাণ দেওয়া সূর্যসন্তানদের স্মরণ করছে কৃতজ্ঞ এ জাতি৷

এ টি