Dhaka 6:21 pm, Monday, 22 April 2024

ব্লগার অভিজিৎ হত্যা মামলার রায় ১৬ ফেব্রুয়ারি

  • Reporter Name
  • Update Time : 01:17:24 pm, Thursday, 4 February 2021
  • 422 Time View

এনবি নিউজঃ বৃহস্পতিবার ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান, আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি বিজ্ঞানমনস্ক লেখক ও মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা অভিজিৎ  হত্যা মামলার রায় ঘোষণার দিন ধার্য করেন।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে মা-বাবার সঙ্গে দেখা করার জন্য ১৫ ফেব্রুয়ারি  দেশে আসেন। ওই বার একুশে বইমেলায় তার দুটি বই প্রকাশিত হয়।

২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি মেলা থেকে ফেরার সময় রাত সাড়ে ৮টায় টিএসসি চত্বরের সামনে স্ত্রী বন্যা আহমেদসহ হামলার শিকার হন তিনি। হামলায় তার মাথার মগজ বের হয়ে যায়। হামলায় চাপাতির আঘাতে বন্যার বা হাতের বৃদ্ধাঙুলও বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

অভিজিৎকে হাসপাতালে নিলে মস্তিষ্কে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তিনি রাত সাড়ে ১০টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ।

ঘটনার পর অভিজিতের বাবা ড. অজয় রায় বাদী হয়ে রাজধানীর শাহবাগ থানায় একটি মামলা করেন। এ মামলায় এখন পর্যন্ত ১০ জনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। এরা হলেন- শফিউর রহমান ফারাবী, মো. সাদেক আলী ওরফে মিঠু, মোহাম্মদ তৌহিদুর রহমান ওরফে গামা, আমিনুল মল্লিক, জুলহাস বিশ্বাস, মো. জাফরান হাসান, মান্না ইয়াহিয়া ওরফে মান্নান বাহি, মো. আবু বকর সিদ্দিক সোহেল, আরাফাত রহমান ও মো. আবুল বাশার। এদের মধ্যে আবুল বাশার জামিনে থাকা অবস্থায় মারা গেছেন।

পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট মামলাটি তদন্ত করে চার বছর পর ২০১৯ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করে।

এ টি/ বৃহস্পতিবার

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

ব্লগার অভিজিৎ হত্যা মামলার রায় ১৬ ফেব্রুয়ারি

Update Time : 01:17:24 pm, Thursday, 4 February 2021

এনবি নিউজঃ বৃহস্পতিবার ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান, আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি বিজ্ঞানমনস্ক লেখক ও মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা অভিজিৎ  হত্যা মামলার রায় ঘোষণার দিন ধার্য করেন।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে মা-বাবার সঙ্গে দেখা করার জন্য ১৫ ফেব্রুয়ারি  দেশে আসেন। ওই বার একুশে বইমেলায় তার দুটি বই প্রকাশিত হয়।

২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি মেলা থেকে ফেরার সময় রাত সাড়ে ৮টায় টিএসসি চত্বরের সামনে স্ত্রী বন্যা আহমেদসহ হামলার শিকার হন তিনি। হামলায় তার মাথার মগজ বের হয়ে যায়। হামলায় চাপাতির আঘাতে বন্যার বা হাতের বৃদ্ধাঙুলও বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

অভিজিৎকে হাসপাতালে নিলে মস্তিষ্কে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তিনি রাত সাড়ে ১০টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ।

ঘটনার পর অভিজিতের বাবা ড. অজয় রায় বাদী হয়ে রাজধানীর শাহবাগ থানায় একটি মামলা করেন। এ মামলায় এখন পর্যন্ত ১০ জনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। এরা হলেন- শফিউর রহমান ফারাবী, মো. সাদেক আলী ওরফে মিঠু, মোহাম্মদ তৌহিদুর রহমান ওরফে গামা, আমিনুল মল্লিক, জুলহাস বিশ্বাস, মো. জাফরান হাসান, মান্না ইয়াহিয়া ওরফে মান্নান বাহি, মো. আবু বকর সিদ্দিক সোহেল, আরাফাত রহমান ও মো. আবুল বাশার। এদের মধ্যে আবুল বাশার জামিনে থাকা অবস্থায় মারা গেছেন।

পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট মামলাটি তদন্ত করে চার বছর পর ২০১৯ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করে।

এ টি/ বৃহস্পতিবার