ঢাকা ১১:৩৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০২৪, ২৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টানা বৃষ্টি ও বানের পানিতে তলিয়ে গেছে সিলেট নগরী

টানা বৃষ্টি ও বানের পানিতে তলিয়ে গেছে সিলেট নগরী

টানা বৃষ্টি ও বানের পানিতে তলিয়ে গেছে সিলেট নগরী

রোববার রাত ১২টার দিকে সিলেটে অতিবৃষ্টি শুরু হয়। সিলেটে বন্যার পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও গতরাতের মাত্র ৬ ঘণ্টার টানা বৃষ্টিতে ফের তলিয়ে গেছে সিলেট নগরী।

টানা ৬ ঘণ্টার বৃষ্টিপাত ও পাহাড়ি ঢলে সিলেটের ৮টি উপজেলায় পানি বাড়ার পাশাপাশি সিলেট সিটি করপোরেশনের নতুন নতুন এলাকাও প্লাবিত হয়েছে। রাস্তাঘাট উপচে পানি ঢুকে পড়েছে বাসা-বাড়িতে।

সরেজমিনে দেখা যায়, সিলেট নগরীর মিরের ময়দান পায়রা, দরগাহ, মিরাবাজার, তালতলা, মাছুদিঘীরপার, জামতলা, তোপখানা, কাজির বাজার, যতপুর, তেররতন, উপশহর, সোবহানীঘাট, শেখঘাট, লালদীঘির পাড়সহ অনেক এলাকা পানির নিচে তলিয়ে গেছে।

নগরীতে বন্যার পানিতে জলাবদ্ধতা তৈরি হওয়া ও নির্ঘুম রাত কাটানো নিয়ে অনেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র ও সিলেটের স্থানীয় সংসদ সদস্যদের প্রতি দাবি জানিয়েছেন যেন সিলেটের সুরমা নদী এবং নদীর পাশের ছড়া ও খাল খনন করে দেওয়া হয়।

গত কয়েকদিনের টানা বৃষ্টিপাত ও উজানের ঢলে সৃষ্ট বন্যা সিলেটের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত অবস্থায় রয়েছে। তবে বৃষ্টিপাত না হওয়ায় গত দুইদিন থেকে নদ-নদীর পানি কিছুটা কমতে শুরু করে। যার ফলে সার্বিক পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতির দিকে ছিল। তবে রোববার রাত থেকে বৃষ্টিপাতের কারণে ফের পানিতে তলিয়ে যায় নতুন নতুন এলাকা।

সর্বাধিক পঠিত

বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশকে দুই প্রকল্পে ৯০০ মিলিয়ন ডলার ঋণ দিলো

টানা বৃষ্টি ও বানের পানিতে তলিয়ে গেছে সিলেট নগরী

আপডেট: ০২:১৪:০৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ জুন ২০২৪

টানা বৃষ্টি ও বানের পানিতে তলিয়ে গেছে সিলেট নগরী

রোববার রাত ১২টার দিকে সিলেটে অতিবৃষ্টি শুরু হয়। সিলেটে বন্যার পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও গতরাতের মাত্র ৬ ঘণ্টার টানা বৃষ্টিতে ফের তলিয়ে গেছে সিলেট নগরী।

টানা ৬ ঘণ্টার বৃষ্টিপাত ও পাহাড়ি ঢলে সিলেটের ৮টি উপজেলায় পানি বাড়ার পাশাপাশি সিলেট সিটি করপোরেশনের নতুন নতুন এলাকাও প্লাবিত হয়েছে। রাস্তাঘাট উপচে পানি ঢুকে পড়েছে বাসা-বাড়িতে।

সরেজমিনে দেখা যায়, সিলেট নগরীর মিরের ময়দান পায়রা, দরগাহ, মিরাবাজার, তালতলা, মাছুদিঘীরপার, জামতলা, তোপখানা, কাজির বাজার, যতপুর, তেররতন, উপশহর, সোবহানীঘাট, শেখঘাট, লালদীঘির পাড়সহ অনেক এলাকা পানির নিচে তলিয়ে গেছে।

নগরীতে বন্যার পানিতে জলাবদ্ধতা তৈরি হওয়া ও নির্ঘুম রাত কাটানো নিয়ে অনেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র ও সিলেটের স্থানীয় সংসদ সদস্যদের প্রতি দাবি জানিয়েছেন যেন সিলেটের সুরমা নদী এবং নদীর পাশের ছড়া ও খাল খনন করে দেওয়া হয়।

গত কয়েকদিনের টানা বৃষ্টিপাত ও উজানের ঢলে সৃষ্ট বন্যা সিলেটের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত অবস্থায় রয়েছে। তবে বৃষ্টিপাত না হওয়ায় গত দুইদিন থেকে নদ-নদীর পানি কিছুটা কমতে শুরু করে। যার ফলে সার্বিক পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতির দিকে ছিল। তবে রোববার রাত থেকে বৃষ্টিপাতের কারণে ফের পানিতে তলিয়ে যায় নতুন নতুন এলাকা।