ঢাকা ০৯:৫০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কোমরের বিছা’ নজরকাড়া লুকে অনুরাগীদের মাঝে ঝড় তুলতে দেখা গেল রুনা খানকে

  • নিউজ ডেস্ক নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট: ০৮:১০:০০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ জুন ২০২৪
  • ১১

কোমরের বিছা’ নজরকাড়া লুকে অনুরাগীদের মাঝে ঝড় তুলতে দেখা গেল রুনা খানকে

কোমরের বিছা’ নজরকাড়া লুকে অনুরাগীদের মাঝে ঝড় তুলতে দেখা গেল রুনা খানকে

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী রুনা খান। সবসময় তিনি নিজেকে ভক্তদের মাঝে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করে থাকেন। তার একটি চমৎকার দিক হলো, যেকোনো লুকে তিনি নজর কাড়েন। সম্প্রতি খোলামেলা পেশাকেও ভক্তদের মাঝে ধরা দিয়েছেন।

এবার ‘কোমরের বিছা’-তে নজরকাড়া লুকে অনুরাগীদের মাঝে ঝড় তুলতে দেখা গেল এ অভিনেত্রীকে। যেখানে সাদা রঙের ‘কোমরের বিছা’ পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভক্তদের মাঝে ছবি শেয়ার করেছেন।

যেখানে ক্যাপশানে তিনি লিখেছেন, আমার বর গহনা বুঝে না। বিয়ের পর থেকে সবসময় বলে এসেছে, আমার কোন গহনা পরার দরকার নেই। আমাকে সবচেয়ে সুন্দর দেখায় তখন, যখন আমি স্নান সেরে,সুতি শাড়ি পরে, চুল শুকিয়ে খোলা চুলে তাকিয়ে হাসি।

স্বামীকে নিয়ে এই অভিনেত্রী উল্লেখ করেছেন, আমার সেই হাসিতে নাকি, চারপাশ ঝলমল করে উঠে। আমার মত কালো একটা মেয়ের হাসিতে কিকরে চারদিক ঝলমল করে, ব্যাপারটা যদিও এই সমাজের এখনো পুরোপুরি বোধগম্য নয়। আশা রাখি, একদিন বোধগম্য হবে।

পোস্টের শেষাংশে রুনা খানের বক্তব্য, তবে বিয়ের পর সে একবার বলেছিলো, তার একটা গহনা পছন্দ ‘কোমরের বিছা’ । আমার তেমন পছন্দ না, মনেও ছিল না,কখনো পরাও হয়নি। পরশু সন্ধ্যায় একটু অবাক হয়েছিলাম, যখন দেখলাম দোতলার মেয়েরা সুতীশাড়ি-ঝুমকার সাথে উপহার পাঠিয়েছে ‘বিছা’। বড় আরাম লাগলো মনে।

নাসরীন হেনা নামে একজন কমেন্টে লিখেছেন, ‘তুমি একটা আদর, ভাগের ভালোবাসাটুকু নিতে পারো খুব। দিতেও জানো ঢের বেশি। দোতলা আর দোতলার মেয়েরা সব সময় তোমার অপেক্ষায়, তুমি এলে আবার মুখর হবে সব।আমরা তোমারই অপেক্ষায়।’

উল্লেখ্য, টেলিভিশন নাটকে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে রুনা খানের কর্মজীবন শুরু হয়। তিনি ‘হালদা’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ও বাচসাস পুরস্কার অর্জন করেন।

এছাড়া তিনি গহীন ‘বালুচর’ ও ‘ছিটকিনি’ ছবিতে অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছেন। ছিটকিনি ছবিতে তার কাজের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনেত্রীর জন্য মেরিল-প্রথম আলো সমালোচক পুরস্কার অর্জন করেন।

সর্বাধিক পঠিত

বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশকে দুই প্রকল্পে ৯০০ মিলিয়ন ডলার ঋণ দিলো

কোমরের বিছা’ নজরকাড়া লুকে অনুরাগীদের মাঝে ঝড় তুলতে দেখা গেল রুনা খানকে

আপডেট: ০৮:১০:০০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ জুন ২০২৪

কোমরের বিছা’ নজরকাড়া লুকে অনুরাগীদের মাঝে ঝড় তুলতে দেখা গেল রুনা খানকে

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী রুনা খান। সবসময় তিনি নিজেকে ভক্তদের মাঝে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করে থাকেন। তার একটি চমৎকার দিক হলো, যেকোনো লুকে তিনি নজর কাড়েন। সম্প্রতি খোলামেলা পেশাকেও ভক্তদের মাঝে ধরা দিয়েছেন।

এবার ‘কোমরের বিছা’-তে নজরকাড়া লুকে অনুরাগীদের মাঝে ঝড় তুলতে দেখা গেল এ অভিনেত্রীকে। যেখানে সাদা রঙের ‘কোমরের বিছা’ পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভক্তদের মাঝে ছবি শেয়ার করেছেন।

যেখানে ক্যাপশানে তিনি লিখেছেন, আমার বর গহনা বুঝে না। বিয়ের পর থেকে সবসময় বলে এসেছে, আমার কোন গহনা পরার দরকার নেই। আমাকে সবচেয়ে সুন্দর দেখায় তখন, যখন আমি স্নান সেরে,সুতি শাড়ি পরে, চুল শুকিয়ে খোলা চুলে তাকিয়ে হাসি।

স্বামীকে নিয়ে এই অভিনেত্রী উল্লেখ করেছেন, আমার সেই হাসিতে নাকি, চারপাশ ঝলমল করে উঠে। আমার মত কালো একটা মেয়ের হাসিতে কিকরে চারদিক ঝলমল করে, ব্যাপারটা যদিও এই সমাজের এখনো পুরোপুরি বোধগম্য নয়। আশা রাখি, একদিন বোধগম্য হবে।

পোস্টের শেষাংশে রুনা খানের বক্তব্য, তবে বিয়ের পর সে একবার বলেছিলো, তার একটা গহনা পছন্দ ‘কোমরের বিছা’ । আমার তেমন পছন্দ না, মনেও ছিল না,কখনো পরাও হয়নি। পরশু সন্ধ্যায় একটু অবাক হয়েছিলাম, যখন দেখলাম দোতলার মেয়েরা সুতীশাড়ি-ঝুমকার সাথে উপহার পাঠিয়েছে ‘বিছা’। বড় আরাম লাগলো মনে।

নাসরীন হেনা নামে একজন কমেন্টে লিখেছেন, ‘তুমি একটা আদর, ভাগের ভালোবাসাটুকু নিতে পারো খুব। দিতেও জানো ঢের বেশি। দোতলা আর দোতলার মেয়েরা সব সময় তোমার অপেক্ষায়, তুমি এলে আবার মুখর হবে সব।আমরা তোমারই অপেক্ষায়।’

উল্লেখ্য, টেলিভিশন নাটকে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে রুনা খানের কর্মজীবন শুরু হয়। তিনি ‘হালদা’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ও বাচসাস পুরস্কার অর্জন করেন।

এছাড়া তিনি গহীন ‘বালুচর’ ও ‘ছিটকিনি’ ছবিতে অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছেন। ছিটকিনি ছবিতে তার কাজের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনেত্রীর জন্য মেরিল-প্রথম আলো সমালোচক পুরস্কার অর্জন করেন।